০১ ডিসেম্বর ২০২০ ০৫:৩৬ অপরাহ্ন     |    ই-পেপার     |     English
০১ ডিসেম্বর ২০২০   |  ই-পেপার   |   English

লেখক এর সকল কলাম


২১ নভেম্বর , ২০২০



স্মৃতি_কথা-০১
 
১৯৭৩ সালে যখন আমি ঢাকা ভার্সিটিতে ভর্তি হই , তখন গোপালগঞ্জ থেকে ঢাকা আসা ছিলো খুবই দূরুহ ব্যাপার। আজ মনে পড়লে গা শিউরে ওঠে ! যদি ঢাকা আসবার সময় ভাটিয়াপাড়া হয়ে আসতে চাইতাম তাহলে আগের দিন ভাটিয়াপাড়া এসে থাকতে হতো ! কারণ তখন ট্রেন ছাড়তো সকাল ছ'টায় । ভাটিয়াপাড়া আসতে হতো পায়ে হেটে! অন্য কোনো ব্যবস্থাই ছিলো না!
দিনে একটি ট্রেন ভাটিয়াপাড়া থেকে রাজ বাড়ীর উদ্দেশে ছেড়ে আসতো। অন্য-কোনো বিকল্প পথ ছিলো না। সে সময় ভাটিয়াপাড়ায় বাস যাওয়ার কোনো রাস্তা ছিলো না । আমরা যে কজন এলাকার ঢাকা ভার্সিটিতে পড়তাম, তারা একসঙ্গে প্রোগ্রাম করে বাড়িতে যেতাম এবং একসঙ্গে প্রোগ্রাম করে ঢাকায় ফিরতাম । এতে সুবিধা ছিলো এটি, আমরা ভাটিয়াপাড়া রেলস্টেশনে নির্ভয়ে একসঙ্গে রাত কাটাতে পারতাম ।
সে-সময় পাগলের মতো বাড়িতে ছুটে যেতাম সেই কষ্ট সাধ্য দূরুহ পথ অতিক্রম করে, কেনো ,তোমরা কি আচ করতে পারবে! হয়তো কেউ কেউ বুঝতে পারবে ! কারণ বাড়িতে ছিলো মা বাবা। কি যে মনের আবেদন, আজও ভাবি কি ভাবে ব্যাকুল হয়ে থাকতাম মায়ের মুখ খানি দেখা'র জন্য । আর মা আমার খাওয়া দাওয়া জোগাড় করা ব্যাতিত অন্য কোনো কিছু ভাবতে ই পারতো না। কয়েক দিন মা বাবার সামনে দিয়ে হৈচৈ করার পর যখন ঢাকায় ফিরতাম, তখন মায়ের চোখের গোপন কান্না আমাকে ও কাদিয়ে তুলতো।

 

অন্যান্য লেখক এর কলাম