জুলাই / ২৫ / ২০২১ ০৮:৪৫ অপরাহ্ন

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুন / ২৮ / ২০২১
১১:২৪ অপরাহ্ন

আপডেট : জুলাই / ২৫ / ২০২১
০৮:৪৫ অপরাহ্ন

জেনে নিন কেন কাঁঠালকে বলা হচ্ছে ‘সুপারফুড



103

Shares

কাঁঠালের ইংরেজি ‘জ্যাকফ্রুট’ নাম এসেছে পর্তুগিজ শব্দ ‘জাকা’ থেকে ৷ কারণ পনেরো শতকে পর্তুগিজরা যখন ভারতের মালাবার উপকূলে এসেছিলেন, তখন স্থানীয় প্রতিশব্দ ‘চাক্কা পজহম’ থেকেই এই ফলকে চিনেছিলেন তারা৷‘চাক্কা’ থেকেই জ্যাক ফ্রুট ৷

আমাদের জাতীয় ফল কাঁঠাল অনেকেই পছন্দের তালিকায় নেই। তবে খাদ্যগুণ ও পুষ্টিমূল্যে ভরপুর কাঁঠালকে পুষ্টিবিদরা কিন্তু ‘সুপারফুড’ বলেন। ৷ জেনে নিন কেন কাঁঠালকে বলা হচ্ছে ‘সুপারফুড’। 

কাঁঠাল আছে ভিটামিন সি আর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট যা রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়৷শর্করায় পরিপূর্ণ এই ফলের ১০০ গ্রাম পরিমাণে থাকে প্রায় ৯৪ ক্যালরি! তাই কাঁঠাল খাওয়ার পর দুর্বলতা কেটে যায় ৷ তবে ডায়াবেটিস রোগীদের এই ফল না খাওয়াই ভালো।

কাঁঠালে আছে প্রচুর পরিমানে পটাশিয়াম৷ পটাশিয়াম হৃদযন্ত্রকে ভালো রাখতে সাহায্য করে। এতে বিঘ্নিত হয় না রক্ত সংবহন পদ্ধতিও।

অল্প পরিমাণে কাঁঠাল পরিপাক ক্রিয়ার জন্য উপকারী। কারণ কাঁঠালে রয়েছে প্রচুর ফাইবার যা পরিপাকে সাহায্য করে ৷

কাঁঠালে থাকা অ্যান্টি অক্সিড্যান্ট শরীরকে টক্সিনমুক্ত রাখতে সাহায্য করে ৷ এতে ক্যান্সারের মতো রোগের আশঙ্কা কম হয় ৷

কাঁঠালে আছে ভিটামিন এ যা চোখের জন্য উপকারী। ভিটামিন এ দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে। ছানি এবং রেটিনার মতো বিভিন্ন চোখের রোগও প্রতিহত করে এই ফল৷

শরীরে অকালবার্ধক্য বা বয়সের ছাপকেও ঠেকিয়ে রাখে কাঁঠাল ৷ক্যালসিয়ামসমৃদ্ধ কাঁঠাল হাড় মজবুত রাখতে সাহায্য করে ৷ দূরে রাখে হাড়ের জটিল রোগের আশঙ্কা ৷

থাইরয়েড এবং দূষণ থেকে হওয়া হাঁপানি রোধ করতেও কাঁঠাল কার্যকরী ৷ ফলের পাশাপাশি কাঁঠালের বিচিও ভীষণ পুষ্টিকর৷ তাই খাদ্য তালিকায় এই মৌসুমী ফল অবশ্যই রাখবেন।

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুন / ২৮ / ২০২১
১১:২৪ অপরাহ্ন

আপডেট : জুলাই / ২৫ / ২০২১
০৮:৪৫ অপরাহ্ন

জীবন যাপন