জুন / ২৬ / ২০২২ ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

সোহেল মিয়া (দোয়ারাবাজার)::

জুন / ২২ / ২০২২
০৮:১৮ অপরাহ্ন

আপডেট : জুন / ২৬ / ২০২২
০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

এখনও পানির নিচে দোয়ারাবাজারের হাজারো পরিবার



25

Shares

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে হাওর ও নদীর বাঁধ ভেঙে প্লাবিত গ্রামগুলোর পানি গত ২৪ ঘণ্টায় অনেকটা কমে এসেছে। তবে কয়েকটি এলাকায় এখনো হাজারো পরিবার পানিবন্দি হয়ে আছে। রান্নাঘর পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় গত শুক্রবার থেকে এখনোও পর্যন্ত অনাহারে অর্ধাহারে বিপাকে রয়েছেন এসব পরিবারের সদস্যরা।


আকস্মিক পানির কারণে দোয়ারাবাজার উপজেলার সবকয়টি আমদানি-রপ্তানি এলাকার কার্যক্রম ব্যাহত রয়েছেন। অতিবর্ষণ ও ভারতীয় পাহাড়ি ঢলের পানির তোড়ে ১৩ জুন ভোর থেকে এই উপজেলার কয়েকটি হাওড়া নদীর বাঁধ ভেঙ্গে যায়।


গত শুক্রবার অতিবর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে দোয়ারাবাজার উপজেলার নয় ইউনিয়নের সবকয়টি  এলাকা প্লাবিত হয়।


বুধবার (২২ জুন) সন্ধ্যায় দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, 'পানির প্রবল স্রোতে উপজেলা সদর থেকে বিভাগিয় শহর সিলেটে যাতায়াতের দোয়ারাবাজার -নোয়ারাই সড়ক, দোয়ারাবাজার-দোহালিয়া সড়ক,  নরসিংপুর-নোয়ারাই সড়ক, বাংলাবাজার -নোয়ারাই সড়ক, নরসিংপুর -বাংলাবাজার সড়কসহ উপজেলার  কয়েকটি জনগুরুত্বপূর্ন সড়কের বিভিন্ন স্থানে দ্বিখণ্ডিত হয়ে পড়ে। এতে  প্রবল বেগে পানি প্রবাহিত হয়ে আশাপাশ গ্রামের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। এতে অনেক পুকুরের মাছ পানির তোড়ে ভেসে যাওয়ায় চাষিরা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।  


তিনি আরোও জানান,অধিকাংশ এলাকার পানি বিপদসীমার নিচে চলে আসলেও উপজেলা সদর ইউনিয়ন, নরসিংপুর ইউনিয়ন, সুরমা ইউনিয়, পান্ডারগাঁও ইউনিয়ন, লক্ষিপুর ইউনিয়নের অধিকাংশ গ্রামের বসতবাড়ি থেকে এখনো পানি নামে নি।

তবে স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নেওয়া অধিকাংশ পরিবার  তারা বাড়ি ফিরে গেছে। তবে রান্নাঘর পানিতে ভিজে যাওয়ায় অনেক পরিবার এখনো খাবার রান্না করা নিয়ে বিপাকে আছেন।


এদিকে পানি কমতে থাকলে ও উপজেলার জনগুরুত্বপূর্ন সড়কগুলো পানিতে তলিয়ে থাকায় অধিকাংশ সড়কে ভাঙ্গন সৃষ্টি হওয়ায়  যোগাযোগ ব্যবস্থা এখনো বিচ্ছিন্ন রয়েছে।


দোয়ারাবাজার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারজানা প্রিয়াঙ্কা  বলেন, 'পুরো উপজেলার বন্যা পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এখনো যারা পানিবন্দী রয়েছেন আমরা প্রতিনিয়ত তাদের খুঁজখবর নিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।

সোহেল মিয়া (দোয়ারাবাজার)::

জুন / ২২ / ২০২২
০৮:১৮ অপরাহ্ন

আপডেট : জুন / ২৬ / ২০২২
০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

সুনামগঞ্জ