জুন / ২৬ / ২০২২ ০৮:১২ পূর্বাহ্ন

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুন / ০৬ / ২০২২
০২:৫২ পূর্বাহ্ন

আপডেট : জুন / ২৬ / ২০২২
০৮:১২ পূর্বাহ্ন

সীতাকুণ্ড বিস্ফোরণে শ্বাসনালি পুড়ে যাওয়া ১৪ জন ঢাকায়


হেলিকপ্টারে আনা রোগী

35

Shares

সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে দগ্ধ আরও ১১ জনকে আজ রোববার ঢাকায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে দুজন ফায়ার সার্ভিস ও একজন পুলিশ সদস্য। এ নিয়ে সকাল সাড়ে ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মোট ১৪ জনকে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

গতকাল শনিবার রাত ১১টার দিকে সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুর এলাকায় অবস্থিত বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ এক  বিস্ফোরণের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৯ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

আজ রোববার (৫জুন) রাত ৮টা পর্যন্ত শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে যাঁরা ভর্তি হয়েছেন তাঁরা হলেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মী রবিন মিয়া (২২) ও গাউসুল আজম (২২), শিল্প পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) কামরুল হাসান (৩৭), ডিপো সিকিউরিটি অ্যাডমিন খালেদুল রহমান (৫৮), নিরাপত্তা ব্যবস্থাপক এ কে এস মাকফুরুল (৬৫), কন্টেইনার ডিপোর সিকিউরিটি ইনচার্জ মাইনুল হক চৌধুরী (৪০), শ্রমিক আমিন উদ্দিন (১৯), ড্রাইভার মো. ফারুক হোসেন (৪৫) ও মোহাম্মদ রাসেল (৩৯), ড্রাইভার রুবেল মিয়া (৩৪), মাসুম মিয়া(৩২), ফারুক হোসেন (১৬), নরসিংদী ফরমানুল ইসলাম (৩২) ও মহিবুল্লাহ (২৭)।

তাঁদের মধ্যে আজ সন্ধ্যায় ফায়ার ফাইটার রবিন মিয়া ও গাউসুল আজম, ড্রাইভার রুবেল মিয়া, মাসুম মিয়া,  ফারুক হোসেন, নরসিংদী ফরমানুল ইসলাম ও মহিবুল্লাহকে সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক সামন্ত লাল সেন সন্ধ্যায় বলেন, ‘এ পর্যন্ত আমরা ১৪ জন রোগী পেয়েছি। কিছুক্ষণ আগে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারে করে সাতজন রোগীকে নিয়ে আসা হয়। প্রত্যেকের শ্বাসনালি পুড়ে গেছে।

ডাক্তার সামন্ত লাল সেন বলেন, যেসব দগ্ধ রোগীকে এখানে আনা হয়েছে তাদের সবার অবস্থাই আশঙ্কাজনক। ২/১ জন ছাড়া সবারই শ্বাসনালী পুড়ে গেছে। তাদের মধ্যে দু’জন ফায়ার ফাইটারকে আইসিইউতে নেয়া হয়েছে।

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুন / ০৬ / ২০২২
০২:৫২ পূর্বাহ্ন

আপডেট : জুন / ২৬ / ২০২২
০৮:১২ পূর্বাহ্ন

সারাদেশ