জুন / ১৬ / ২০২১ ০৫:২৭ পূর্বাহ্ন

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুন / ০৯ / ২০২১
০৯:২৫ পূর্বাহ্ন

আপডেট : জুন / ১৬ / ২০২১
০৫:২৭ পূর্বাহ্ন

২ গোলে এগিয়ে থেকেও কলম্বিয়ার সাথেও আর্জেন্টিনার পয়েন্ট ভাগাভাগি



15

Shares

বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আগের ম্যাচে চিলির বিপক্ষে অনেক সুযোগ পেয়েও জয়সূচক গোলের দেখা না মেলেনি আর্জেন্টিনার। যার দুর্ভাবনা ভর করেছিল কোচ স্কলোনির মনে। কোচের সেই চিন্তাকে আজ ভোরের ম্যাচে প্রথমার্ধে ধুয়ে মুছে দিয়েছিলেন শিষ্যরা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে এসে সব হাসি, হতাশায় পরিণত হলো। ভাগ্যবরণ করতে হলো সেই চিলের বিপক্ষের ম্যাচের।  

ম্যাচের হাইলাইটস দেখুন:


কোপা আমেরিকার শুরু আগেই বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে বুধবার ভোরে কলম্বিয়ার মুখোমুখি হয়েছে আর্জেন্টিনা। কলম্বিয়ার এস্তাদিও মেত্রোপলিতানোয় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শুরুটা দারুণ করলেও তীরে এসে তরী ডুবিয়েছেন স্কলানির শিষ্যরা। প্রথমার্ধেই দুই গোলের লিড নিয়েও সেই ড্রয়ে ম্যাচ হয়েছে আর্জেন্টিনটার।

ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা। ডান দিক থেকে রদ্রিগো দে পলের দারুণ ফ্রি কিকে লাফিয়ে হেডে দলকে এগিয়ে নেন রোমেরো।

এর পাঁচ মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পারেদেস। ডি-বক্সে মেসি শট নিতে ব্যর্থ হলোও ঠিকই পেরেছেন তিনি।

বল বুক দিয়ে নামানোর ফাঁকে প্রতিপক্ষের দুই জনকে অতিক্রম করে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন পারেদেস।

এরপর লাউতারো মার্তিনেসের বাড়ানো ফিরতি পাস ধরে আরেকজনকে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে জাল কাঁপান পিএসজি মিডফিল্ডার।

প্রথমার্ধের ৩৪তম মিনিটে ঘটে এক দুর্ঘটনা। বল ধরতে গিয়ে কলাম্বিয়ারা ইয়েরি মিনার সঙ্গে ধাক্কা লেগে বেকায়দায় পড়ে যান আর্জেন্টিনার মূল গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেস। মাথায় ও কাঁধে আঘাত পান তিনি। পাঁচ মিনিটেরও বেশি সময় মাঠেই তার চিকিৎসা চলে। কিন্তু তাতেও সেরে না উঠলে স্ট্রেচারে করে তাকে বাইরে নেওয়া হয়।

মূল গোলরক্ষক হারিয়ে দুশ্চিন্তার ছায়া নেমেছে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের শিবিরে। কারণ কোপা আমেরিকা শুরুর মাত্র কদিন আগে বিষয়টি দলটিকে বড় দুর্ভাবনার ফেলেছে।

এরপর প্রথমার্ধে আর কোনো গোল হয়নি। ২-০ স্কোরলাইনে মাঠ ছাড়ে দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধে নেমেই একটি গোল শোধ করেন লুইস মুরিয়েল। ৫১ তম মিনিটে মুরিয়েল সফল হলে স্কোর গিয়ে দাঁড়ায় ২-১ এ। লুডি-বক্সে মাতেউস উরিবের মুখে নিকোলাস ওতামেন্দি আঘাত করলে পেনাল্টি বাঁশি বাজান রেফারি। হলুদ কার্ডও দেখেন আর্জেন্টিনার ডিফেন্ডার। সফল স্পট কিকে গোল করেন লুইস মুরিয়েল।

৫৮তম মিনিটে মেসির দুর্দান্ত এক ফ্রি কিক দারুণভাবে ঝাঁপিয়ে কোনোমতে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকিয়ে দেন কলাম্বিয়ান গোলরক্ষক অসপিনা।

এভাবেই চলতে থাকে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণ। ৮৫তম মিনিটে আবারও শট নেনে মেসি। ডি-বক্সের মধ্যে থেকে বার্সেলোনা তারকার শট ঝাঁপিয়ে ফেরান নাপোলি গোলরক্ষক।

আর্জেন্টাইন সমর্থকরা ধরেই নেয় যে, এক গোলের ব্যবধানে জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়বে মেসির দল।

কিন্তু সেই ধারণাকে ভেঙে চূরমার করে দেন মিগুয়েল বোরহা। তাও কিনা অতিরিক্ত যোগ করা সময়ের শেষ মুহূর্তে।

এ যেন শেষ মুহূর্তে কলাম্বিয়ার চমক। ৯৪তম মিনিটে বোরহার গোলে ২-২ সমতায় ফেরে কলাম্বিয়া। ডান দিক থেকে হুয়ান কুয়াদরাদোর ক্রসে হেডে গোলটি করেন বোরহা। বদলি গোলরক্ষক আগুস্তিন মার্চেসিন বলটি স্পর্শই করতে পারেননি।

এর পর পরও শেষ বাঁশি বাজান রেফারি। প্রথমার্ধে দুই গোল এগিয়ে থেকেও ম্যাচ শেষে ড্রয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে আজেন্টিনা করে।

এ নিয়ে ছয় ম্যাচে তিনটি করে জয় ও ড্রয়ে আর্জেন্টিনার পয়েন্ট ১২।

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

জুন / ০৯ / ২০২১
০৯:২৫ পূর্বাহ্ন

আপডেট : জুন / ১৬ / ২০২১
০৫:২৭ পূর্বাহ্ন

খেলা