১৪ এপ্রিল ২০২১ ১১:২১ পূর্বাহ্ন     |    ই-পেপার     |     English
১৪ এপ্রিল ২০২১   |  ই-পেপার   |   English
জুম মিটিংয়ে আলোচনাকালে ডা. সায়েফ আহমদ
মানবকল্যাণে প্রতিষ্ঠা করা হবে ভাটেরা জেনারেল হাসপাতাল
মানবকল্যাণে প্রতিষ্ঠা করা হবে ভাটেরা জেনারেল হাসপাতাল

জৈন্তা বার্তা ডেস্ক

এপ্রিল ০৫, ২০২১ ০৬:৪৯ পিএম



মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার ঐতিহাসিক জনপদ ভাটেরায় প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে ভাটেরা জেনারেল হাপাতাল। সামর্থ্যবানদের জন্য কমমূল্যে এবং দু:স্থদের জন্য বিনামূল্যে আধুনিক চিকিৎসাসেবা প্রদানের মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে এ হাসপাতাল যাত্রা শুরু করবে বলে কানাডা প্রবাসী ডা. সায়েফ আহমদ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
রবিবার (৪ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৯টায় ভাটেরা জেনারেল হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার বিস্তারিত পরিকল্পনা বিষয়ক জুম মিটিংয়ে ভাটেরিয়ান সিলেট-এর নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনাকালে তিনি একথাগুলো বলেন।
এ সময় জুম মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করে বক্তব্য রাখেন ভাটেরিয়ান সিলেট এর আহ্বায়ক মুহাম্মদ লুৎফুর রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক মো. শফিক মিয়া ও আহমদ কবির রিপন, সদস্যসচিব শামীম আহমদ, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ভাটেরিয়ান ডা. আহমেদ আল আমিন অপু, কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রহমান খান, সদস্য আব্দুল করিম লোকন, মোস্তাফিজুর রহমান খান প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কুলাউড়া এসোসিয়েশন অব নিউজার্সি, ইউএস-এর সভাপতি মো. রাজা মিয়া তালুকদার।
জুম মিটিংয়ে ভাটেরা জেনারেল হাসপাতালের উদ্যোক্তা ডা. সায়েফ আরো জানান, কুলাউড়া-ভাটেরা-সিলেট সড়কের পাশে এবং ভাটেরা রেলওয়ে স্টেশনের সন্নিকটে অতি মনোরম পরিবেশে ভাটেরায় অবস্থিত তাঁর পৈত্রিক বাড়ির ৩৫ শতাংশ ভূমি এ হাসপাতালের জন্য বরাদ্দ দিয়েছেন। এখানে পাঁচতলা বিশিষ্ট হাসপাতাল ভবন নির্মাণ করা হবে। রোগীদের জন্য থাকবে আউটডোর সেবা, কেবিন, ওয়ার্ডে ভর্তিকৃত রোগীদের জন্য আবাসিক চিকিৎসাসেবা এবং আধুনিক ল্যাব প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে সকল প্রকার ডায়াগনোসিসের ব্যবস্থা। তাছাড়া হাসপাতালে আইসিইউ, সিসিইউ সুবিধা প্রদানেরও আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি এ হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা এবং হাসপাতালে আধুনিক চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে ভাটেরা এলাকার সকল শ্রেণি পেশার মানুষ, জনপ্রতিনিধি, সামাজিক সংগঠন এবং প্রবাসী ভাটেরিয়ানদের সহযোগিতা কামনা করেন।
এদিকে, সর্বস্তরের ভাটেরাবাসির সহযোগিতায় ‘ভাটেরা জেনারেল হাসপাতাল’ নির্মাণের উদ্দেশ্যে ২১ মার্চ বাংলাদেশ সময় রাত ৯ টায় অনলাইনে ১ম জুম মিটিংয়ের মাধ্যমে পরামর্শ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
যৌথভাবে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আমেরিকা প্রবাসী মো. রাজা মিয়া তালুকদার ও যুক্তরাজ্য প্রবাসী সাইফুর রহমান সুমন।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সরকারের শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব ভাটেরার কৃতিসন্তান মিকাইল শিপার এবং প্রধান অতিথি ছিলেন ভাটেরার কৃতিসস্তান, ভাটেরা স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ, আমেরিকা প্রবাসী সকলের প্রিয় শিক্ষক জনাব নজরুল ইসলাম ফারুক।
পবিত্র কুরআনে পাক থেকে তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। কুরআন পাক থেকে তেলাওয়াত করেন জনাব সাইফুর রহমান সুমন।
উদ্বোধনী বক্তব্য পেশ করেন ডাক্তার সায়েফ আহমদ। ভাটেরা এলাকার গুরুত্ব বিবেচনায় কুলাউড়া ফেঞ্চুগঞ্জ ও জুড়ী উপজেলার সর্বসাধারণের চিকিৎসা সেবা প্রদানের গুরুত্ব তুলে ধরেন। এজন্য তার দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন একটি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠিত করার পরিকল্পনার কথা বলেন। এজন্য তার বাড়িতে একটি হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনার কথা এলাকাবাসীকে অবহিত করেন। তিনি আরও বলেন, মানব সেবার মহান উদ্দেশ্যে তিনি তার মেধা, যোগ্যতা, পৈত্রিক সম্পত্তি এবং সম্পদ ভাটেরাবাসীকে উৎসর্গ করবেন। এলাকাবাসী যদি এই উদ্যোগে সর্বাত্মক সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন তবে তিনি এধরনের একটি উদ্যোগ বাস্তবায়ন এগিয়ে আসার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
ডাক্তার সায়েফ আহমেদের এই উদ্যোগের প্রতি সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়ে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ডক্টর নুরুল ইসলাম, বিশিষ্ট সমাজসেবক মাহবুবুল মোরেশদ খসরু, আব্দুস শহীদ খয়রু, সৈয়দ ফজলুর রহমান, সাইফুর রহমান রবিন, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সাবেক শিক্ষক এ কে এম মতিউর রহমান আজাদ, যুক্তরাষ্ট্রস্থ টাইম টেলিভিশনের পরিচালক সৈয়দ ইলিয়াস খসরু, প্রফেসর আব্দুল মালিক, আব্দুল মতিন আলতা, কানাডা প্রবাসী বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব মকবুল হাসান হালিম ও আব্দুস সালাম, স্পেন প্রবাসী কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব আবুল কালাম, সাউথ আফ্রিকার অধিবাসী আবুল কাশেম, রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজের সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. আহমেদ আল আমিন, ওসমানী মেডিকেল কলেজের সাইকিয়াট্রি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. সাঈদ এনাম অলিদ, ভাটেরিয়ান সিলেট এর পক্ষ থেকে সম্পাদক শামীম আহমদ, আব্দুর রহমান খান, মোস্তাফিজুর রহমান খান টিপু, শফিকুর রহমান, ভাটেরা ইউনিয়নর সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম, সিলেট ক্যাপ্টেন একাডেমীর ভাইস প্রিন্সিপাল আব্দুর রহমান খান, ইতালি প্রবাসী এ কে এম মাহবুবুর রহমান, সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালের ভাইস-চেয়ারম্যান ফখরুল ইসলাম, ভাটেরার তরুণ ব্যবসায়ী জাফর উল্লাহ। এছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন হেলাল উদ্দিন সিদ্দিকী, মৌলানা ফয়জুর রহমান, জিলানী খান, সামসুর রহমান মাসুম, মাহবুব খান, মো. বদরুজ্জামান, মৌলানা আব্দুল করিম, জুনেল, মৌলানা নিয়ামত খান, রুহুল আমিন, জুবায়ের, মুহিব, শামীম প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম ফারুক বলেন, আমরা ভাটেরার মানুষ একই পরিবারের সদস্য এবং সবাই আজ ডাক্তার সায়েফ আহমদ এর উদ্যোগে একত্রিত হওয়াতে আমি খুবই আনন্দিত। আমার মনে হচ্ছে আমরা এখন ভাটেরাতে অবস্থান করছি। সায়েফ এর আকাক্সক্ষা বাস্তবে রূপ দিতে এবং অতীত ঐতিহ্য সমুন্নত রাখতে, সর্বস্তরের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে এই প্রতিষ্ঠান বাস্তবায়ন করতে আমরা সর্বোত্তম সহযোগিতায় এগিয়ে আসবো।
অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ সরকারের শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের স্বনামধন্য সাবেক সচিব মিকাইল শিপার বলেন, আমাদের প্রথম পরিচয় ভাটেরার অধিবাসী। ডাক্তার সায়েফ আহমেদের এই উদ্যোগকে আমি সর্বাত্মক সহযোগিতা আশ্বাস দিচ্ছি, সে আমার ভাই, তার আব্বার সাথে আমার আব্বার নিবিড় সম্পর্ক ছিল, তারা আজ জান্নাতবাসি। তিনি বলেন-আজকের এই সার্থক ভার্চুয়াল মিটিং-এ একশো এর অধিক উপস্থিতি অসাধারণ এবং ইহা সকলের স্বতস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণের বহিঃপ্রকাশ। তিনি আশা প্রকাশ করেন সম্পূর্ণ নির্দলীয়ভাবে এই প্রতিষ্ঠান অত্র এলাকার সর্বসাধারণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে যথাযথ ভূমিকা পালন করবে। আমি আমার অবস্থান থেকে সরকারি, বেসরকারি, ব্যক্তিগত পর্যায়ে সকল ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখব।
উল্লেখ্য, উক্ত মতবিনিময় সভায় স্বপ্রণোদিত হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী আবুল কাশেম এবং যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আব্দুল মতিন ১০ লক্ষ টাকা করে প্রতিষ্ঠানে সদগায়ে জারিয়া দেওয়ার ঘোষণা দেন। প্রায় তিনঘন্টাব্যাপী এই অনুষ্ঠান মাওলানা সালেহ আহমদ-এর মোনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

এম/আর

News Desk