মে / ১৮ / ২০২২ ০৩:৫৭ অপরাহ্ন

হোসাইন আহমেদ

সেপ্টেম্বর / ২৩ / ২০২০
০৭:১১ পূর্বাহ্ন

আপডেট : মে / ১৮ / ২০২২
০৩:৫৭ অপরাহ্ন

শুভ জন্মদিন ব্যান্ড দল ডি-ক্যাবিনেট!



220

Shares

জীবনের প্রায় অর্ধেক পথটিতে এসে নিজের বিচরণ করা বিষয় সমূহ শিক্ষা খেলাধুলা সামাজিক বা রাজনৈতিক ক্ষেত্রে কি ছিল আমার প্রাপ্তি অর্জন বা সাফল্য!! প্রায় অনেকেই কথাটি জিজ্ঞেস করেন, কারো প্রশ্নে আবার ব্যঙ্গ বিদ্রুপটাও অনুভূত হয় !! নিজের একান্ত ভাবনায়ও প্রাপ্তি অর্জন বা সাফল্যের উপস্থিতি খুব বেশি দৃশ্যমান হয়না!!

এই অপ্রাপ্তি আর ব্যর্থতায় এখন পর্যন্ত আমার জীবনে বয়ে চলা যত হতাশা কিংবা অন্যের যাবতীয় জিজ্ঞাসা ঠাট্টা বিদ্রুপগুলো একটি বিষয়ের সম্মুখে এসে থমকে দাঁড়ায়, রীতিমতো স্তব্ধ হতে হয়!!

সঙ্গীত চর্চায় ভগ্নাংশ তম কোন যোগ্যতা পারদর্শীতা অবদানের অস্তিত্ব আমার জীবনে খুঁজ করা কল্পনারও অতীত কোন বিষয়!! নিজের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের একজন সংগঠক হিসেবেও প্রকৃতপক্ষে অনেকটা চালচুলোহীন!! এরপরেও সেই সংগঠক হিসেবেই ক্ষুদ্র এই আমি মুরারিচাঁদ কলেজের সর্বপ্রথম ও এখন পর্যন্ত একমাত্র মিউজিক্যাল ব্যান্ড দল ডি-ক্যাবিনেট এর আজীবন সদস্য পদ পাই!!

মহামূল্যবান এই উপহার প্রদানের নেপথ্যে ছেলেগুলোর ভাবনা ছিল ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক আয়োজনে আমি সুযোগ করে দেওয়ায় তারা প্রকাশিত প্রচারিত হয়েছে দ্রুত!! এটা সম্পূর্ণ রুপে একটি ভুল ধারণা!! কেননা আমাদের কলেজের সঙ্গীত চর্চার মূল সংগঠন মোহনার সঙ্গীত শিল্পীদের মধ্যে প্রায় সবাই ফোক বা আধুনিক বাংলা গানে পারদর্শী ! গোটা দেশখ্যাত এমসি কলেজের সংস্কৃতি চর্চায় ব্যান্ড সঙ্গীতের শূন্যতা ছিলই, যা সময়ে সময়ে স্পষ্টভাবে বারবারই অনুভূত হয়েছে!

ডি ক্যাবিনেটের উপস্থিতি এমসি কলেজের সাংস্কৃতিক চর্চাকে দিয়েছিল সেই পূর্ণতা!! কারো অনুগ্রহে নয় তারা প্রস্ফুটিত হয়েছ নিজস্ব যোগ্যতায়!! আমার অবদান ছিল মুটামুটি সুবোধ আচরণ আর হাসিমুখে তাদের সাদরে গ্রহণ করা!! যাইহোক অবদান থাকলেও তাদের প্রতিদানটাই যথেষ্ট!! বরং অনেক বেশিই!!

এরজন্য প্রতিবছর অবদানটি তুলে ধরে ফেসবুকে আমাদের নামে প্রশংসা করা অনেকটা ব্যক্তি প্রচারের মতো দৃষ্টি কটু দেখায় !!আর ব্যক্তি নাম উল্লেখ করে ডি ক্যাবিনেটকে পরিচয় দেওয়া ফেসবুকের প্রায় পোস্টগুলোতে আমরা যারা সংগীতের বেসিকেই অজ্ঞ সেই তিনজন লাইফ মেম্বারের নামই ঘুরেফিরে দেখছি!!

অথচ এটি একটি ব্যান্ড সংগীত দল!! যাদের কন্ঠে, যাদের গিঠার বা অন্যান্য বাদ্যযন্ত্রের মূর্ছনায় মানুষ ব্যান্ড সংগীতের জন্য যোগ্য অযোগ্য সফল ব্যর্থ হিসেবে ডি ক্যাবিনেটকে জাষ্টিফিকেশন করবে তাদের প্রাদপ্রদীপের আড়ালে রেখে সাধারণ মানুষের হৃদয়ে স্থান নেওয়াটা কঠিন, অসম্ভবই বটে!!

ক্যাম্পাসের বিপুল গ্রহনযোগ্যতা জনপ্রিয়তায় ডি ক্যাবিনেটের বর্তমান অবস্থানটি শত সহস্রেরও অধিক দায়িত্বশীলতার কথা বলে! ব্যক্তিপ্রাধান্যের মতো তুচ্ছতায় জড়িত হওয়ার সময় এখন একেবারেই নয়!! নিজেদের মৌলিক গান, এলবাম সৃষ্টির মতো ধারাবাহিক সৃজনশীল চর্চায় ব্যান্ড সঙ্গীতে জাতীয় ভাবে ভূমিকা রাখা এবং ধীরে ধীরে সাফল্য পদক বা অর্জন দিয়ে জাতীয় পর্যায়ে আরেকটিবার প্রিয় মুরারিচাঁদ কলেজের শ্রেষ্ঠত্ব তুলে ধরাতেই থাক আমাদের মূল দৃষ্টিটি নিবদ্ধ!!

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর মতো আনন্দের দিনেও ভালবাসা থেকে কড়া ভাষার ব্যবহার বেশিই হয়ে গেল!! যে অধিকারটি তোমাদেরই প্রদানকৃত!! প্রিয় ডি ক্যাবিনেট, কড়াকথাগুলোর সাথে সাথে এই পাগলের ভালবাসাটুকুও নিও!! আর এভাবেই সাথে রেখো সবসময়, কোন নেতা নয় আপন ভাই বন্ধু সহযাত্রী হিসেবে!!

শুভ জন্মদিন, ব্যান্ড দল ডি-ক্যাবিনেট।

লেখক : হোসাইন আহমেদ, সংগঠক, এমসি কলেজ ছাত্রলীগ

হোসাইন আহমেদ

সেপ্টেম্বর / ২৩ / ২০২০
০৭:১১ পূর্বাহ্ন

আপডেট : মে / ১৮ / ২০২২
০৩:৫৭ অপরাহ্ন

পাঠকের কথা