মে / ১৮ / ২০২২ ০৪:১২ অপরাহ্ন

বাহরাইন থেকে

জুন / ২৯ / ২০২০
০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন

আপডেট : মে / ১৮ / ২০২২
০৪:১২ অপরাহ্ন

পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও প্রবাসীকল্যান মন্ত্রীর কাছে বিশেষ অনুরোধ


লেখক: সুজিত চন্দ্র দাস

372

Shares

দয়া করে অতি দ্রুত বাংলাদেশে অবস্থিত এমিরাতস এয়ারলাইনসের সকল  অফিসে নজরদারী শুরু করুন।

এরা অসহায়  প্রবাসীদের নিকট থেকে বলতে গেলে  গলা কেটে অতিরিক্ত টাকা নিচ্ছে। টিকেটের মূল্য কোন্ যুক্তিতেই ঢাকা টু বাহরাইন  এক লক্ষ / এক লক্ষ বিশ হাজার এরকম  হতে পারে না।

বাংলাদেশের অসহায় প্রবাসীদেরকে এরা কি পেয়েছে? এমনিতেই শত শত প্রবাসী ছুটিতে গিয়ে করোনার কারনে সময়মত আসতে না পারায় ভিসার মেয়াদ শেষ। এরা আর আসতে পারছে না। আর কিছু প্রবাসীর ভাগ্যক্রমে ভিসার মেয়াদ এখনো থাকায় এরা বাহরাইন সরকারের সদয় কৃপা হওয়াতে ফিরে আসার অনুমতি পেয়েছেন। কিন্তু দূর্ভাগ্যের বিষয় এই মানুষগুলি অনেকেই আপ ডাউন টিকেট করে গেলেও এখন এদেরকে বাংলাদেশে এমিরাতস বিমান অফিস টিকেট কনফার্ম করে দিচ্ছে না।

বলছে আগামী মাসে ও মানে জুলাই মাসেও নাকি কোন সীট নাই।  কিন্তু ওরা লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে টিকেট বিক্রি করছে যারা নতুন টিকেট করছে কেবল তাদেরকে দিচ্ছে। কিন্তু যারা আপ ডাউন টিকেট করে গিয়েছে নিয়মমত এদের অগ্রাধিকার দেয়ার কথা আগে। 

তাছাড়া এদের অনেকেরই জুলাই মাসে ভিসা শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু এসব কোন বিবেচনায় নিচ্ছে না বিমান অফিসগুলো কেবল তাদের মুনাফার দিকে খেয়াল করে।কারন আপ ডাউন যারা টিকেট কেটে গিয়েছেন এদের নিকট তো আর অতিরিক্ত টাকা চাইতে পারবে না ওরা। তাই এদের কে সোজা বলে দেয় আগামী মাস পর্যন্ত কোন সীট নাই বিমানে। এসব কেবল এদের সিন্ডিকেটের কারনে।

সুতরাং এসব অনিয়ম, দুর্নীতি দেখুন। এরা কি দেশের আইনের উর্দ্ধে? দয়া করে  বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এদের বিরুদ্ধে খোঁজ নিন। আর অসহায় প্রবাসীদের ভিসার মেয়াদের ভিত্তিতে টিকেট দিতে বিমান অফিস গুলোকে নির্দেশ প্রদান করুন। এটা বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্ব।

এই বিষয় টা নিয়া বাহরাইনে বাংলাদেশ দূতাবাসের সাবেক এক কর্মকর্তা তাজ উদ্দিন সাহেব যিনি এখনো বাহরাইনে আছেন তিনি ফেসবুক লাইভে  ক্ষুব্ধ মনোভাব প্রকাশ করেছেন। তাজ উদ্দিন সাহেব উনি প্রবাসী বাংলাদেশীদের জন্য দারুন কাজ করে যাচ্ছেন। লাইভেও এই টিকেট সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে গভীর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

সুতরাং বাংলাদেশ সরকার কে দ্রুত এবিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সকল বাহরাইন প্রবাসীদের পক্ষ থেকে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।

বাংলাদেশ দূতাবাস মানামা থেকে বাংলাদেশে ছুটিতে থাকা বাহরাইন প্রবাসীদের জন্য সুখবর দিয়েছে। কেবল যাদের ভিসার মেয়াদ আছে তাদের জন্য এটি সুখবর। 

বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় নিশ্চিত করেছে যে, যারা ছুটিতে বাংলাদেশে আছেন, এবং যাদের ভিসার মেয়াদ এখনো  রয়েছে তারা যেকোনো  নিয়মিত (কমার্শিয়াল) ফ্লাইটে বাহারাইনে চলে আসতে পারবেন। তবে তাদের কে অবশ্যই সেই সংশ্লিষ্ট বিমান বা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত স্বাস্থ্য নির্দেশনা মেনে আসতে হবে। 

তবে মনে রাখতে হবে, বাহরাইন এয়ারপোর্টে আসার পর করোনাভাইরাস পরীক্ষা ও বাহরাইন সরকারের এ সংক্রান্ত গাইডলাইন অনুসরণ করতে হবে এবং কোয়ারান্টিনে যেতে হবে। 

এই স্বাস্থ্য নির্দেশনা মেনে না চললে যাত্রীকে বাহরাইন সরকার অনেক বড় অংকের টাকা জরিমানা করবে।

ছুটিতে থাকা অবস্থায় যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে, তাদের ব্যাপারে বাংলাদেশ  দূতাবাস এখনো বাহারাইন সরকারের সাথে আলোচনা করছে। 

 

বাহরাইন থেকে

জুন / ২৯ / ২০২০
০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন

আপডেট : মে / ১৮ / ২০২২
০৪:১২ অপরাহ্ন

পাঠকের কথা